,
প্রচ্ছদ | জাতীয় | আন্তর্জাতিক | সারাদেশ | রাজনীতি | বিনোদন | খেলাধুলা | ফিচার | অপরাধ | অর্থনীতি | ধর্ম | তথ্য প্রযুক্তি | লাইফ স্টাইল | শিক্ষাঙ্গন | স্বাস্থ্য | নারী ও শিশু | সাক্ষাতকার

টেকনাফে মেজর সিনহা হত্যা: ৪ দিনেও অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মামলা হয়নি

চট্টগ্রাম ব্যুরো:

কক্সবাজারে টেকনাফে সেনাবাহিনীর অবসর প্রাপ্ত মেজর সিনহা রাশেদ খানকে গুলি করে হত্যার ৪ দিন অতিবাহিত হলেও অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে এখনো হত্যা মামলা দায়ের হয় নি।
মঙ্গলবার (৪ আগষ্ট) বিকাল পর্যন্ত পরিবার কিংবা অন্য কেউ পুলিশের বিরুদ্ধে কোন মামলা করেনি। তবে এ চাঞ্চল্যকর ঘটনা নিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের গঠিত উচ্চ পর্যায়ের একটি তদন্ত টিম কাজ কারছে। এছাড়া সেনাবাহিনী ডিজিএফআইসহ কয়েকটি গোয়েন্দা সংস্থা আলাদা আলাদা তদন্ত করছে।
কক্সবাজারের পুলিশ সুপার এ বি এম মাসুদ হোসেন বলেন এ ঘটনার বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে তদন্ত চলছে। তাই আমি কিছু বলতে পারছি না। অভিযুক্ত পুলিশের বিরুদ্ধে পরিবার বা অন্য কোন পক্ষ থেকে মামলা দায়ের করেছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, প্রতিটি বন্দুকযুদ্ধের পর মাদক ও অস্ত্র উদ্ধার সংক্রান্ত যেভাবে পুলিশের পক্ষ থেকে নিয়মিত মামলা হয় সে রকম দুটি পৃথক মামলা হয়েছে। এসব মামলায় কোন আসামী নেই। আর কেউ কোন মামলা করেনি। তবে পুলিশের করা মামলায় হত্যা মামলা হিসেবে ধারা লাগানো হয়েছে বলে তিনি জানান।
সেনাবাহিনীর একজন (অব.) মেজরকে গুলি করে হত্যার দায় সংশ্লিষ্ট ওসি এবং আপনি পুলিশ সুপার হিসেবে দায় এড়াতে পারেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাব দিতে অপারগতা প্রকাশ করে বলেন, আপনার এ প্রশ্নের জবাব আমি দেবো না। আপনি আমাদের ব্যাক্তিগভাবে প্রশ্ন করতে চাচ্ছে না কেন..? এরপর তিনি কল কেটে দেন।
উল্লেখ্য-গত শুক্রবার (৩১ জুলাই) রাত ৯টার দিকে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কের টেকনাফের বাহারছড়া শামলাপুর তল্লাশি চৌকিতে পুলিশ ইন্সপেক্টর লিয়াকতের গুলিতে সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা রাশেদ খান নিহত হন। অভিযোগ রয়েছে তল্লাশীর জন্য গাড়ী থামিয়ে লিয়াকত মেজর সিনহাকে কোন কথা বলতে না দিয়ে পরপর তিনটি গুলি করে। পরে তাকে অহত অবস্থায় পৌনে একঘন্টা ফেলে রাখে মৃত্যু নিশ্চিত করে। গোয়েন্দা সংস্থা সমূহের তদন্তে উঠে এসেছে পুলিশের উর্দ্ধতন কর্মকর্তা বিশেষ করে টেকনাফের বির্তর্কিত ওসির নির্দেশ পেয়েই ইন্সপেক্টর লিয়াকত সেনাবাহিনীর সাবেক মেজরের পরিচয় জানা সত্বেও তাকে গুলি করে হত্যা করেছে।
এসব বিষয়ে জানতে সোমবার দিনভর টেকনাফ থানার ওসি প্রদীপের সরকারী মোবাইল নাম্বার অসংখ্যবার ফোন করেও তার সাথে যোগাযোগ করে বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয় নি। সর্বশেষ রাত ১১টার পর আবারও ফোন করা হলে তিনি বার বার কল কেটে দেন।

Leave a Reply

VIDEO_EDITING_AD_CNI_NEWS
প্রধান সম্পাদক : তোফায়েল হোসেন তোফাসানি
বার্তা সম্পাদক : রোমানা রুমি, ৫৭, সুলতান মার্কেট (তয় তলা), দক্ষিনখান, উত্তরা, ঢাকা।
ফোন ও ফ্যাক্স : ০২-৭৭৪১৯৭১, মোবাইল ফোন : ০১৭১১০৭০৯৩১
ই-মেইল : cninewsdesk24@gmail.com, cninews10@gmail.com
আঞ্চলিক অফিস : সি-১১/১৪, আমতলা মোড়, ছায়াবিথি, সোবহানবাগ, সাভার, ঢাকা।
Design & Developed BY PopularITLimited