,
প্রচ্ছদ | জাতীয় | আন্তর্জাতিক | সারাদেশ | রাজনীতি | বিনোদন | খেলাধুলা | ফিচার | অপরাধ | অর্থনীতি | ধর্ম | তথ্য প্রযুক্তি | লাইফ স্টাইল | শিক্ষাঙ্গন | স্বাস্থ্য | নারী ও শিশু | সাক্ষাতকার

মেহেরপুরের গাংনীতে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে বলি হতে চলেছে বাবা- মায়ের কবর

মিনারুল ইসলাম, মেহেরপুরঃ

গাংনীতে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে বলি হতে চলেছে বাবা-মায়ের ৩৫ বছরের পুরানো কবর। ঘটনাটি ঘটেছে মেহেরপুর জেলার গাংনী উপজেলার ভ্রমরদা গ্রামে।
স্থানীয়রা জানান, ওই গ্রামের মৃত হারান মালিথার ছেলে জলিল মালিথা রবিবার সকালে কয়েকজন লোক সাথে নিয়ে তাদের পারিবারিক কবরস্থানে একটি কবর খুড়তে যায় এবং কিছু অংশ কবর খুঁড়ে। স্থানীয়রা আরো জানান, মৃত ওমর মালিথা ও মৃত হারান মালিথার ছেলেদের মধ্যে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধ দীর্ঘদিন ধরে চলে আসছে। জমি ভাগাভাগি সময় মৃত হারান মালিথা ও তার স্ত্রীর কবর এবং মৃত হারান মালিথার ছেলে আব্দুল জলিলের দুই মেয়ের কবর ওমর মালিথার ছেলেদের জমির মধ্যে পড়ে যায়।  যদিও ওই কবরস্থানটি মালিথা বংশের পারিবারিক কবরস্থান। তারপরেও কী করা হবে ওই কবরগুলো এমন একটি সমস্যার সৃষ্টি হয়। এমন বিরোধের জেরে  গত সপ্তাহে স্থানীয় ইউপি সদস্য ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ দের নিয়ে একটি সালিশ মীমাংসা হয়। কিন্তু হঠাৎ রবিবার সকালে আব্দুল জলিল মালিথা তার বাবা-মা ও তার দুই মেয়ের কবর খুঁড়ে তাদের হাড়গোড় স্থানান্তর করবে বলে তাদের নিজের জায়গায় একটি কবর খুঁড়ে।
একই গ্রামের মৃত আব্দুল কুদ্দুস আলীর ছেলে প্রবাস ফেরত শাজাহান আলীর ইন্ধনে এমন কাজ করা হয়েছে বলে জানান তারা।
সাংবাদিকরা সংবাদ সংগ্রহ করতে গেলে শাহজাহান আলী সাংবাদিকদের ওপর চড়াও হয় এবং ক্যামেরা ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে।

মৃত হারান মালিথার ছেলে আব্দুল জলিল মালিথা জানান, ওটি আমাদের বংশীয় কবরস্থানের জমি আমার বাপ চাচারা দিয়েছে কিন্তু আমার চাচাতো ভাই নজরুল ইসলাম ও তার পরিবারের লোকজন মাঝে মাঝেই আমার বাবা-মায়ের কবর নিয়ে কথা বলে। তাই আমি রাগে ক্ষোভে এমন কাজ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।
কিন্তু তার আর দুই ভাই খোশবার মালিথা ও আব্দুল গনি মালিথার সাথে কথা বললে এ ব্যাপারে তারা কিছুই জানেন না এবং তাদের সাথে এ ব্যাপারে কোনো আলাপ-আলোচনা করেননি বলে জানান।

মৃত ওমর মালিথার ছেলে নজরুল ইসলাম জানান,  গত সপ্তাহে স্থানীয় ইউপি সদস্য ও গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে একটি আপোষ মীমাংসা হয়। আপস-মীমাংসায় আমাদেরকে ওই কবরে জায়গার বিনিময়ে মাঠে এক শতক জমি রেজিস্ট্রি করে দিবে বলে সিদ্ধান্ত হয়। আপস-মীমাংসার একদিন পরেই জলিল মালিথা তার ওয়াদা ফিরিয়ে নেই এবং রবিবার সকালে এমন ঘটনার সূত্রপাত ঘটায়। নজরুল ইসলামের আরো দুই ভাই আমিরুল মালিথা ও শরিফুল মালিথা।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আবু বক্কর জানান, এক ভাইয়ের জমির উপর আরেক ভাইয়ের কবর থাকায় মাঝে মাঝেই কথা শুনতে হয় এমন অভিযোগের ভিত্তিতে গত ১০ দিন আগে একটি সালিশ হয়। আপোষ মীমাংসায় কবরের জমির বিনিময়ে অন্যত্র এক শতক জমি রেজিস্ট্রি করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। পরে কাউকে কিছু না জানিয়ে রবিরার সাকালে এমন ঘটনা ঘটিয়েছে জলিল মালিথা।

Leave a Reply

VIDEO_EDITING_AD_CNI_NEWS
প্রধান সম্পাদক : তোফায়েল হোসেন তোফাসানি
বার্তা সম্পাদক : রোমানা রুমি, ৫৭, সুলতান মার্কেট (তয় তলা), দক্ষিনখান, উত্তরা, ঢাকা।
ফোন ও ফ্যাক্স : ০২-৭৭৪১৯৭১, মোবাইল ফোন : ০১৭১১০৭০৯৩১
ই-মেইল : cninewsdesk24@gmail.com, cninews10@gmail.com
আঞ্চলিক অফিস : সি-১১/১৪, আমতলা মোড়, ছায়াবিথি, সোবহানবাগ, সাভার, ঢাকা।
Design & Developed BY PopularITLimited