,
প্রচ্ছদ | জাতীয় | আন্তর্জাতিক | সারাদেশ | রাজনীতি | বিনোদন | খেলাধুলা | ফিচার | অপরাধ | অর্থনীতি | ধর্ম | তথ্য প্রযুক্তি | লাইফ স্টাইল | শিক্ষাঙ্গন | স্বাস্থ্য | নারী ও শিশু | সাক্ষাতকার

সাভারে অতিরিক্ত বাসভাড়ার প্রতিবাদ করায় সাংবাদিকের মোবাইল কেড়ে নিল ট্রাফিক পুলিশ

স্টাফ রিপোর্টার:

করোনা ভাইরাস মহামারীতে যথন দেশের সকলে মানবিক, তখন যানবাহনের অতিরিক্ত ভাড়া নেয়ার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করায় এক ট্রাফিক কনস্টেবল হয়রানী করেছে সংবাদকর্মীকে। রহস্যজনক কারনে ট্রাফিক কনস্টেবল সংবাদকর্মীকে ধরে ট্রাফিকবক্সে নিয়ে যায় এবং মোবাইল ফোন কেড়ে নেয়। ঘটনাটি ঘটেছে গত ২৫ মার্চ সাভার বাসস্ট্যান্ডে।

ভূক্তভুগী সংবাদকর্মী এসএম মনিরুল ইসলাম জানান, তিনি বিকেলে সাভার থেকে পাটুরিয়া যাওয়ার উদ্দেশ্যে সাভার বাসস্ট্যান্ডে আসেন। তিনি এখানে এসে দেখতে পান যে, এমএম লাভলী নামে একটি গণ পরিবহন ট্রাফিক পুলিশের সামনেই প্রতিটি যাত্রীর কাছ থেকে দ্বিগুন ভাড়া আদায় করছে। যানবাহনের তীব্র সংকটের মধ্যে এ ধরনের কাজ করতে দেখে তাঁর প্রতিবাদ করেন এসএম মনিরুল ইসলাম। এ সময় তাঁর সাথে অসদারচণ করেন পরিবহনের একজন। সব কিছু দেখেও নিরব ভূমিকায় ছিলেন সেখানে দায়িত্বরত ট্রাফিক পুলিশ।

এই মহামারীর সময় মানুষকে জিম্মি করে ২’শ টাকা করে ভাড়া আদায়ের প্রতিবাদ করায় মনিরুলকে যাইচ্ছে তাই বলা শুরু করে পরিবহন শ্রমিক একজন। ঘটনাটি জানাতে মনিরুল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লাইভে যান এবং ঘটনাটি দেখে সচেতন সকলে হতবাক হয়ে যান।

এরই মধ্যে মনিরুল ইসলাম পাশে থাকা ট্রাফিক পুলিশকে ঘটনাটি জানায় এবং নিজে সংবাদ কর্মী বলে পরিচয় দেয়। এ সময় হঠাৎ ঝড়ের বেগে এসে সাংবাদিক জানার পরও এসএম মনিরুলের মোবাইল ফোন কেড়ে নিয়ে তাঁকে পাশ্ববর্তী ট্রাফিক বক্সে যেতে বাধ্য করেন দায়িত্বরত পুলিশ কনস্টেবল মাসুদ। এ সময় মনিরুলের সাথে অশালীণ আচরণ করেন মাসুদ। ঘটনাস্থলে আরেক ট্রাফিক পুলিশ পরিবহন এমএম লাভলীর চালককে দেড়শ টাকা করে ভাড়া নিতে বলে মনিরুলকে চলে যেতে বলেন। কিন্তু কনস্টেবল মাসুদ কর্তৃক তাঁর নাজেহাল হওয়ার ব্যাপারে কোন সুরাহা করেন নি।

সংবাদকর্মী এসএম মনিরুল ইসলাম জানান, এই মহামারীর সময় যখন মানুষ কষ্টে দিন চালাচ্ছে তখন ট্রাফিক পুলিশের সামনে এ ধরনের ঘটনা যে কোন বিবেকবান মানুষকে প্রতিবাদী করবে। তাই আমি ঘটনার প্রতিবাদ করতে গিয়ে নাজেহাল হয়েছি। যার কোন বিচার এখন পাইনি।

তৎক্ষনাৎ বিয়টি তিনি সাভার অজ্ঞলের টিআই আবুল হোসেনকে তিনি জানান। গতকাল থেকে আজ অবধি কেউ ফোন করে দুঃখ প্রকাশও করেনি।

মনিরুল এ ব্যাপারে উর্ধতন পুলিশ কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন।

ঘটনাটির প্রতিবাদ জানিয়েছে সাভার ও ঢাকার বিভিন্ন সাংবাদিক সংগঠন ও সচেতন সাংবাদিক মহল। কনস্টেবল মাসুদ ও অন্যান্যদের জনস্বার্থের বিষয় নিয়ে এ ধরনের আচরণ কাম্য নয় বলেও জানান সাংবাদিক নেতারা।

উল্লেখ্য, ভুক্তভোগী ওই সাংবাদিক এস এম মনিরুল ইসলাম ইংরেজি দৈনিক ডেইলি ইন্ডাস্ট্রির সাভার প্রতিনিধি।

নিচের লিংকে ক্লিক করে ফেসবুকের লাইভ ভিডিওটি দেখে নিন-

https://www.facebook.com/100011080878219/videos/1083793925333293/?id=100011080878219

Leave a Reply

VIDEO_EDITING_AD_CNI_NEWS
প্রধান সম্পাদক : তোফায়েল হোসেন তোফাসানি
বার্তা সম্পাদক : রোমানা রুমি, ৫৭, সুলতান মার্কেট (তয় তলা), দক্ষিনখান, উত্তরা, ঢাকা।
ফোন ও ফ্যাক্স : ০২-৭৭৪১৯৭১, মোবাইল ফোন : ০১৭১১০৭০৯৩১
ই-মেইল : cninewsdesk24@gmail.com, cninews10@gmail.com
আঞ্চলিক অফিস : সি-১১/১৪, আমতলা মোড়, ছায়াবিথি, সোবহানবাগ, সাভার, ঢাকা।
Design & Developed BY PopularITLimited