,
প্রচ্ছদ | জাতীয় | আন্তর্জাতিক | সারাদেশ | রাজনীতি | বিনোদন | খেলাধুলা | ফিচার | অপরাধ | অর্থনীতি | ধর্ম | তথ্য প্রযুক্তি | লাইফ স্টাইল | শিক্ষাঙ্গন | স্বাস্থ্য | নারী ও শিশু | সাক্ষাতকার

সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডাক্তারকে চড় মারলেন নারী রোগী

সিএনআই নিউজ অনলাইন ডেস্ক : সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্তব্যরত এক নারী ডাক্তারকে থাপ্পর মারলেন আউটডোরে চিকিৎসা নিতে আসা এক নারী সদস্য। এ খবর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেসহ বিভিন্ন দপ্তরে পৌঁছলে কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ ডাক্তার ও নার্সরা একত্রিত হয়ে হাসপাতালের কাজ বন্ধ রাখে। পরে তারা ওই নারী রোগীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য হাসপাতালের সামনে অবস্থান ধর্মঘট এবং কর্মবিরতি পালন করে। আজ বুধবার দুপুরে সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ ঘটনা ঘটে। এ ধর্মঘটের কারণে শত শত আউটডোর রোগি তাদের সেবা নিতে চরম ভোগান্তিতে পড়ে। জানা গেছে, সাভার মডেল থানার এএসআই মাহবুবুর রহমানের আত্মীয় পরিচয়দানকারী এক নারী সদস্য বুধবার দুপুরে সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আইটডোরে চিকিৎসা নিতে আসেন। এসময় ওই নারীর সঙ্গে সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা: রওশন আরার রোগি দেখতে দেরি হওয়ার বিষয় নিয়ে কথাকাটাটি হয়। এক পর্যায়ে ওই নারী রোগি উত্তেজিত হয়ে ডা: রওশন আরার গালে থাপ্পর মেরে দৌঁড়ে পালানোর চেষ্টা করেন। এ সময় ডাক্তারের চিৎকারের অন্য আউটডোরে চিকিৎসা নিতে আসা রোগি ও হাসপাতালের কর্মচারীরা দৌঁড়ে গিয়ে তাকে ধরে ফেলেন। এসময় তিনি সাভার মডেল থানার এএসআই মাবুবুর রহমানের শাশুড়ি পরিচয় দিয়ে তাদের উপরও উত্তেজিত হয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। বিষয়টি তাতক্ষণিক সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার মোহাম্মদ সায়েমুল হককে অবগত করা হলে ওই নারী সদস্যকে তার রুমে নিয়ে যেতে বলেন। পরে তার পরিচয় জানতে চাইলে তিনি সাভার মডেল থানার এএসআই মাবুবুর রহমানের আত্মীয় (শাশুড়ী) হিসেবে পরিচয় প্রদান করেন। সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা বিষয়টি সাভার মডেল থানাকে অবগত করলে তাতক্ষণিক সাভার মডেল থানার ওসি (অপারেশন) জাকারিয়া হোসেন, এস আই তৌহিদ হোসেন এবং এএসআই মাবুবুর রহমানসহ ৩/৪ জনের একটি মহিলা পুলিশ সদস্য দ্রুত ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন। ওই নারী সাভার মডেল থানার এএসআইয়ের আত্মীয় হওয়ায় তাতক্ষণিকভাবে বিষয়টি ধামাচাপা দিতে সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা মোহাম্মদ সায়েমুল হক ও সাবেক স্বাস্থ্য কর্মকর্তা নাজমুল হুদা মিঠু এবং সাভার মডেল থানার ওসি (অপারেশন) মো: জাকারিয়া হোসেনসহ স্থানীয় কয়েক ব্যক্তিকে সঙ্গে নিয়ে বৈঠক হয়। তারা ওই নারী রোগিকে দিয়ে ভুক্তভোগি সাভার উপজেলা কমপ্লেক্স মেডিকেল অফিসার ডা: রওশন আরার কাছ থেকে মাফ চেয়ে দ্রুত বিষয়টি সিন্ধান্ত গ্রহণ করেন। কিন্তু ডা: রওশন আরা বিষয়টি এভাবে মানতে রাজি না হওয়ায় তারা তাকে আইনের হাতে তুলে দেওয়ার আহবান জানিয়ে স্বাস্থ্য কর্মকর্তার কক্ষ ত্যাগ করার চেষ্টা করেন। পরে সাভার উপজেলার সাবেক ভারপ্রাপ্ত স্বাস্থ্য কর্মকর্তা নাজমুল হুদা মিঠু নাটকিয়ভাবে ওই নারীকে দিয়ে পুনরায় ডা: রওশন আরার কাছে মাফ চেয়ে পুলিশের হাতে আটকের উদ্দেশ্য তুলে দেন। এসময় সাভার মডেল থানার মহিলা পুলিশ দিয়ে আটক অবস্থায় স্বাস্থ্য কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে বের করে নিয়ে যান। এব্যাপারে জানতে চাইলে সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার নুসরাত জাহান জানান, নিউজ করার মত কোন ঘটনা না, এটা ডাক্তার ও রোগির মধ্যে তুচ্ছ বিষয় নিয়ে ভুল বুঝাবুঝি হয়েছে। সকলের উপস্থিতে বিষয়টি মিমাংশাও হয়ে গেছে। তবে চিকিৎসা নিতে আসা নারীর নাম জানতে চাইলে তিনি অপরাগতা প্রকাশ করেন। পরে সাভার মডেল থানার গিয়ে আটক ব্যক্তির বিষয়য়ে জানতে চাইলে ডিউটি অফিসার জানান, এরকম কোন ঘটনায় কাউকে আটক করে থানা আনা হয়নি। সাভার মডেল থানার অফিসার ইনচার্য এএফএম সায়েদ জানান, বিষয়টি থানা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মিমাংশা হওয়ায় এবং কোন লিখিত অভিযোগ না পাওয়ায় কাউকে আটক করা হয়নি। সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ সায়েমুল হক জানান, ভুলবশত একটি ঘটনা ঘটে গেছে। বিষয়টি আমরা বসে মিমাংশা করেছি। এ বিষয়ে নিউজ না করার অনুরোধ জানান।

Leave a Reply

VIDEO_EDITING_AD_CNI_NEWS
প্রধান সম্পাদক : তোফায়েল হোসেন তোফাসানি
বার্তা সম্পাদক : রোমানা রুমি, ৫৭, সুলতান মার্কেট (তয় তলা), দক্ষিনখান, উত্তরা, ঢাকা।
ফোন ও ফ্যাক্স : ০২-৭৭৪১৯৭১, মোবাইল ফোন : ০১৭১১০৭০৯৩১
ই-মেইল : cninewsdesk24@gmail.com, cninews10@gmail.com
আঞ্চলিক অফিস : সি-১১/১৪, আমতলা মোড়, ছায়াবিথি, সোবহানবাগ, সাভার, ঢাকা।
Design & Developed BY PopularITLimited