,
প্রচ্ছদ | জাতীয় | আন্তর্জাতিক | সারাদেশ | রাজনীতি | বিনোদন | খেলাধুলা | ফিচার | অপরাধ | অর্থনীতি | ধর্ম | তথ্য প্রযুক্তি | লাইফ স্টাইল | শিক্ষাঙ্গন | স্বাস্থ্য | নারী ও শিশু | সাক্ষাতকার

মোদীর বায়োপিক নিয়ে কংগ্রেস নেতার আর্জি মানতে নারাজ সুপ্রিম কোর্ট

সিএনআই নিউজ : ‘প্রাইম মিনিস্টার নরেন্দ্র মোদী’, প্রধানমন্ত্রীর বায়োপিক। এই সিনেমা নিয়ে কংগ্রেস নেতার আর্জি মানতে নারাজ সুপ্রিম কোর্ট। সোমবার ওই মামলার শুনানিতে শীর্ষ আদালত জানিয়েছে, ওই সিনেমা এখনও সেন্সর বোর্ডের শংসাপত্র পায়নি। তাই এখনই এ নিয়ে কোনও স্থগিতাদেশ জারি করা হবে না। মঙ্গলবার ওই মামলার ফের শুনানি হবে। আদালত সূত্রে খবর, যদি আবেদনকারী ওই সিনেমায় কোনও বিতর্কিত কিছু রয়েছে তার প্রমাণ দেখাতে পারেন, তবেই এ নিয়ে কোনও নির্দেশ দেওয়া হতে পারে। চলতি বছরের শুরুর দিকে মোদীর বায়োপিকের বিষয়টি সামনে আসে। তার পর থেকে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছে এই সিনেমা। লোকসভা নির্বাচন প্রক্রিয়া চলাকালীন এই সিনেমার মুক্তির তারিখ নিয়েও বিতর্ক তৈরি হয়। প্রথমে জানানো হয় যে মোদীর বায়োপিক মুক্তি পাবে ১২ এপ্রিল। পরে সেই তারিখ এগিয়ে আসে। জানানো হয়, ৫ এপ্রিল এই সিনেমা মুক্তি পাবে। কিন্তু সেই তারিখ বদলে এখন হয়েছে ১১ এপ্রিল। এদিকে নির্বাচনের মধ্যে সিনেমার মুক্তি আটকাতে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন এক কংগ্রেস কর্মী। আদালত সূত্রে খবর, তাঁর আইনজীবী মোদীর বায়োপিকের একটি কপি চেয়েছেন দেখার জন্য। আদালত সেই আর্জিও খারিজ করে দিয়েছে। কেন ওই সিনেমার কপি দেওয়া হবে, সেই প্রশ্নও তোলা হয়েছে আদালতের তরফে। এপ্রিলের ৪ তারিখ সেন্সর বোর্ডের চেয়ারম্যান একটি সংবাদসংস্থাকে জানিয়েছিলেন, মোদীর বায়োপিক এখন তাঁরা খতিয়ে দেখছেন। এখনও সিনেমা মুক্তির জন্য কোনও শংসাপত্র দেওয়া হয়নি। কংগ্রেস নেতার আইনজীবীর পাল্টা আদালতে প্রশ্ন তোলেন, তাহলে প্রযোজক কীভাবে সিনেমার মুক্তির দিন ঘোষণা করল? ডিভিশন বেঞ্চের বক্তব্য, শংসাপত্র পেয়ে যাবেন, এমনটা মনে করেই হয়তো মুক্তির দিন ঘোষণা করা হয়েছে। তবে মোদীর বায়োপিকের সঙ্গে বিজেপির যোগসূত্র প্রমাণে আবেদনকারীর তরফে দাবি করা হয় যে ওই সিনেমায় মোদীর ভূমিকায় অভিনয় করছেন বিবেক ওবেরয়। তিনি আবার গুজরাটে বিজেপির তারকা প্রচারকদের মধ্যে অন্যতম। তাঁর বাবা সুরেশ ওবেরয়ও বিজেপির সদস্য। সেই কারণেই আবেদনকারীর তরফে সুপ্রিম কোর্টের কাছে আর্জি সিনেমার স্ক্রিনিংয়ের নির্দেশ দেওয়া হোক। সুপ্রিম কোর্টের সেই ক্ষমতা রয়েছে বলে আবেদনে বলা হয়েছে। প্রসঙ্গত, এর আগে মোদীর বায়োপিক আটকাতে একাধিক হাইকোর্টে মামলা হয়েছে। প্রতিবারই আবেদন খারিজ করে বিষয়টি নির্বাচন কমিশনের এক্তিয়ারভুক্ত বলে জানানো হয়েছে।

Leave a Reply

VIDEO_EDITING_AD_CNI_NEWS
প্রধান সম্পাদক : তোফায়েল হোসেন তোফাসানি
বার্তা সম্পাদক : রোমানা রুমি, ৫৭, সুলতান মার্কেট (তয় তলা), দক্ষিনখান, উত্তরা, ঢাকা।
ফোন ও ফ্যাক্স : ০২-৭৭৪১৯৭১, মোবাইল ফোন : ০১৭১১০৭০৯৩১
ই-মেইল : cninewsdesk24@gmail.com, cninews10@gmail.com
আঞ্চলিক অফিস : সি-১১/১৪, আমতলা মোড়, ছায়াবিথি, সোবহানবাগ, সাভার, ঢাকা।
Design & Developed BY PopularITLimited